শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:১০ পূর্বাহ্ন

দৃষ্টি দিন:
সম্মানিত পাঠক, আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি। প্রতিমুহূর্তের সংবাদ জানতে ভিজিট করুন -www.coxsbazarvoice.com, আর নতুন নতুন ভিডিও পেতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল Cox's Bazar Voice. ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে শেয়ার করুন এবং কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।

অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতির জন্য কর্ণফুলী পরিবারের দুঃখ প্রকাশ

বার্তা পরিবেশক:

বাংলাদেশের স্বনামধন্য জাহাজ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান কর্ণফুলী শিপ বিল্ডার্সের পরিচালনাধীন কর্ণফুলী এক্সপ্রেস গত ২০১৯ সালের ৩১শে জানুয়ারি হতে অদ্যবদি সুনামের সহিত কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে পর্যটক ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সেবা দিয়ে আসছে। তাছাড়া আমাদের কোম্পানির পরিচালিত বাংলাদেশের একমাত্র বিলাসবহুল জাহাজ এমভি বেওয়ান চট্টগ্রাম-সেন্টমার্টিন রুটে পরিচালিত হচ্ছে। এতে করে নৌ-রুটে পর্যটন শিল্পের আমূল পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। পাশাপাশি বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে।

উল্লেখ্য যে, গত ১৫ ডিসেম্বর রাত আনুমানিক ৯টার সময় বাঁকখালী নদী মোহনায় (আশ্রয়ণ প্রকল্পের সমানে) নাব্যতা সংকটের কারণে জাহাজটি আটকে যায় (যা বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ উক্ত নৌ-রুট ড্রেজিং করা অব্যাহত রেখেছে)। ওই স্থানে জাহাজটি আটকে থাকার ফলে ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়। পরবর্তীতে পর্যটকদের সুবিধার্থে ১৬ ডিসেম্বর এমভি বেওয়ান ক্রুজ শীপের মাধ্যমে সেন্টমার্টিনে পর্যটকদের পৌঁছাতে সক্ষম হয়। যেহেতু কর্ণফুলী এক্সপ্রেসের মাধ্যমে সেন্টমার্টিন ভ্রমণের টিকেট পূর্ব থেকে বিক্রয় করা ছিল আমরা তৎক্ষনাৎ ট্যুর অপারেটর ও এজেন্টদের মাধ্যমে পর্যটকদের টিকেট ফেরত দিয়ে টাকা বুঝে নেওয়ার ঘোষণা দিই। কিন্তু এতে যথাযথ সাড়া না পাওয়ায় এমভি বেওয়ানে করে পর্যটকদের সেবা দিতে বাধ্য হয়। গত ১৬ ডিসেম্বর থেকে ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত পর্যটক পরিবহন কিছু সময় বিঘ্নিত হলেও অনেকটাই স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু গত ২০ ডিসেম্বর হঠাৎ বাতাসের গতি বেড়ে যাওয়ায় সাগর উত্তাল হয়ে পড়ে। ফলশ্রুতিতে এমভি বেওয়ান জাহাজটি সেন্টামার্টিন হতে বিকাল ৪টায় ছেড়ে এসে রাত ৯টায় কক্সবাজার পৌঁছাতে সক্ষম হলেও বিআইডব্লিউটিসি পরিচালনাধীন জাহাজ এমভি বারো আউলিয়ায় স্থানান্তর করলে উত্তাল ঢেউয়ের কারণে পর্যটকদের মধ্যে আতংকের সৃষ্টি হতো এমনকি প্রাণহানির মতো ঘটনাও ঘটতে পারতো বিধায় পর্যটকদের নির্দিষ্ট সময়ে এমভি বারো আউলিয়া জাহাজে স্থানান্তর করা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য যে, এমভি বেওয়ান জাহাজে পর্যটকদের পর্যাপ্ত খাবারের ব্যবস্থা করেছিল জাহাজ কর্তৃপক্ষ। পর্যটকদের এই সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা কর্ণফুলী পরিবার আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। ২১ ডিসেম্বর থেকে এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস জাহাজটি নুনিয়া ছড়া ঘাট হতে সরাসরি সেন্টমার্টিন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

পর্যটন শিল্প বিকাশে আমরা আরও অবদান রাখতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন, সাংবাদিক, ট্যুর অপারেটরসহ সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি।

ভয়েস/আআ

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020
Design & Developed BY jmitsolution.com