শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন

দৃষ্টি দিন:
সম্মানিত পাঠক, আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি। প্রতিমুহূর্তের সংবাদ জানতে ভিজিট করুন -www.coxsbazarvoice.com, আর নতুন নতুন ভিডিও পেতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল Cox's Bazar Voice. ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে শেয়ার করুন এবং কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।

চট্টগ্রামে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব

চট্টগ্রাম হাসপাতাল,ফাইল ছবি

ভয়েস নিউজ ডেস্ক:

চট্টগ্রাম নগরীতে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। গত সোমবার থেকে আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) হাসপাতালে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ১৭২ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১১৭ জন।

বর্তমানে হাসপাতালটিতে ৫৫ জন রোগী চিকিৎসাধীন। এখন পর্যন্ত ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি বলে জানিয়েছে বিআইটিআইডি কর্তৃপক্ষ।

সবশেষ বুধবার (১৭ আগস্ট) সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বিআইটিআইডি হাসপাতালে ভর্তি হন ৪৫ জন রোগী। ডায়রিয়া আক্রান্তদের মধ্যে শহরের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে সিইপিজেড, হালিশহর, সল্টগোলা ও আশেপাশের এলাকার বাসিন্দা বেশি।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিআইটিআইডির সহযোগী অধ্যাপক মো. মামুনুর রশীদ।

তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট সকাল ৮টা থেকে ১৬ আগস্ট ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বিআইটিআইডিতে ভর্তি হন ৬৯ জন রোগী। পরের ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছিলেন ৫৮ জন। এছাড়া বুধবার সকাল থেকে আজ বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ৪৫ জন রোগী হাসপাতালটিতে ভর্তি হন। এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ১১৭ জন রোগী। বাকি ৫৫ জন এখনও চিকিৎসাধীন।

তিনি বলেন, আক্রান্তদের মধ্যে কলেরার উপসর্গ বেশি মনে হচ্ছে। কারো কারো জ্বর, কারো বেশি বমি হচ্ছে। অনেক রোগী আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে আসেন। তবে এখন পর্যন্ত কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি।

ডা. মামুনুর রশীদ বলেন, আজকেও রোগী আসছে। সব বয়সের রোগীই আছে। তবে আক্রান্তদের মধ্যে মাঝ ২০ থেকে ৬০ বয়সী মানুষ বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। আক্রান্তরা বেশিরভাগই না ফুটিয়ে ওয়াসার সরবরাহ করা পানি পান করেন বলে জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রথম দিন আক্রান্ত ২২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে সাতজনের নমুনায় কলেরার জীবাণু পাওয়া গেছে, দ্বিতীয় দিন ১৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১০ জনের কলেরার জীবাণু পাওয়া গেছে। আজকেও স্যাম্পল কালেকশন করা হচ্ছে, তার ফলাফল আগামীকাল পাওয়া যাবে।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. মো. ইলিয়াছ চৌধুরী বলেন, চট্টগ্রামের সিটি করপোরেশন এলাকায় হঠাৎ করে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। বিষয়টি অনুসন্ধান করে দেখতে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটকে (আইইডিসিআর) চিঠি পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, কীভাবে তারা আক্রান্ত হয়েছেন, তা জানতে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করতে আইইডিসিআরকে আমরা চিঠি দিয়েছিলাম। এখনই আক্রান্ত হওয়ার কারণ সুনির্দিষ্টভাবে বলতে পারছি না। আগামীকাল আইইডিসিআর থেকে ৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল চট্টগ্রাম ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডি সরেজমিনে পরিদর্শন করবেন।

ভয়েস/আআ

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020
Design & Developed BY jmitsolution.com