মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৪:৫৬ অপরাহ্ন

দৃষ্টি দিন:
সম্মানিত পাঠক, আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি। প্রতিমুহূর্তের সংবাদ জানতে ভিজিট করুন -www.coxsbazarvoice.com, আর নতুন নতুন ভিডিও পেতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল Cox's Bazar Voice. ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে শেয়ার করুন এবং কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।

মিয়ানমারের তাজা বুলেট তুমব্রু সীমান্তের বাড়ীতে

নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু সীমান্তের ওপারে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের ওয়ালিডং পাহাড়ে টহল দিচ্ছেন সে দেশের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। আজ মঙ্গলবার সকালে ছবি: প্রথম আলোর থেকে নেওয়া

বিশেষ প্রতিবেদক:
মিয়ানমারের রাখাইন ষ্টেটে সেদেশের সেনাবাহিনী- বিদ্রোহী গ্রুপের সংঘর্ষের ছুঁড়া গুলি নাইকংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু গ্রামে একেবারে জনবসতিতে এসে পড়েছে। আজ শুক্রবার বিকেলে তুমব্রু গ্রামের কোনারপাড়ার বাসিন্দা সিএনজি অটোরিকশা চালক শাহাজাহানের বাড়ির উঠানে এসে পড়ে একটি তাজা বুলেট। তবে এসময় কেউই হতাহত হয়নি।
গ্রামবাসীরা জানান শুক্রবার বিকেলে সীমান্তের ওপারে মিয়ানমারের অভ্যান্তরে তীব্র গোলাগুলির শব্দ আসে। মুহুর্মুহ গোলাগুলির শব্দে সীমান্তে  বসবাসকারী বাংলাদেশী বাসিন্দারা আতংকে বাড়ি ঘর ফেলে নিরাপদ দুরত্বে সরে পড়ে। সীমান্তের নোম্যান্সলেন্ডের সাথে লাগোয়া বাংলাদেশের গ্রাম কোনারপাড়ার ঠিক ওপারে প্রচন্ড গোলাগুলি হয়।
গোলাগুলির শব্দ একটু কমলে কোনারপাড়া বাসিন্দা শাহজাহান তার বাড়ির উঠানে এসে দেখে একটি তাজা বুলেট পড়ে আছে।
ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন বিকেল থেকে হঠাৎ করে সীমান্তের ওপারে প্রচন্ড গোলাগুলি শুরু হয়। এর মধ্যে মিয়ানমারের ছুঁড়া একটি গুলি শাহজাহানের বাড়ির উঠানে এসে পড়েছে। পরে খবর পেয়ে কক্সবাজার ৩৪ ব্যাটালিয়নের অধীন তুমব্রু সীমান্ত ফাঁড়ির বিজিবি সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে এই বুলেট উদ্ধার করে তাদের হেফাজতে নিয়ে যায়।
তিনি জানান সীমান্তের ৩৩ নম্বর সীমানা পিলার থেকে ৪১ নম্বর সীমানা পিলার পর্যন্ত এলাকায় মিয়ানমারের ভেতরে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সাথে বিদ্রোহী গ্রুপ আরকান আর্মি মধ্যে প্রতিদিনই সংঘর্ষ গোলাগুলি হচ্ছে। ইতিপূর্বে মিয়ানমারের নিক্ষেপ করা মর্টার শেল এবং গুলি বাংলাদেশের ভেতরে এসে পড়েছে।
তিনি আরও জানান তুমব্রু গ্রামের কোনারপাড়ার পাশে সীমান্তের শুন্যরেখায় বসবাস করছে মিয়ানমার থেকে আসা প্রায় সাড়ে চার হাজার রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী।
ভয়েস/আআ

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020
Design & Developed BY jmitsolution.com