রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন

দৃষ্টি দিন:
সম্মানিত পাঠক, আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি। প্রতিমুহূর্তের সংবাদ জানতে ভিজিট করুন -www.coxsbazarvoice.com, আর নতুন নতুন ভিডিও পেতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল Cox's Bazar Voice. ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে শেয়ার করুন এবং কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।

লন্ড‌নে বাংলায় লেখা হলো স্টেশ‌নের নাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
পূর্ব লন্ডনে বাংলাদেশিদের ‘আদি ঠিকানা’ হিসেবে পরিচিত ব্রিকলেন, ব্রিকলেন মসজিদ ও ইস্ট লন্ডন মসজিদ। আশেপাশের অনেক দোকানের নামও বাংলায় লেখা। এই এলাকার সড়কগুলোতে হাঁটলে মনে হয়, দূর পরবাসে এক টুকরো বাংলাদেশ। এবার সেই গৌরবগাঁথার সাথে যুক্ত হলো আরও একটি নতুন ধাপ। এই এলাকার একটি ট্রেন স্টেশনটির নাম লেখা হলো বাংলায়।

‘হোয়াইটচ্যাপেল স্টেশন’ নামে এই স্টেশনটি বাংলাদেশি কমিউনিটি অধ্যুষিত পূর্ব লন্ডনে অবস্থিত। প্রতিদিন এই স্টেশন দিয়ে চলাচল করেন বিভিন্ন ভাষাভাষী ও জাতিসত্ত্বার হাজার হাজার মানুষ। এখন থেকে তারা ইংরেজির পাশাপাশি বাংলায় দেখবেন হোয়াইটচ্যাপেল স্টেশনের নাম। সম্প্রতি নতুন সাইন‌বোর্ডটি স্টেশ‌নে যুক্ত করা হয়।

সংশ্লিষ্ঠরা বলছেন, এর মধ্য দিয়ে লন্ড‌নে বাংলাদেশি কমিউনিটির দীর্ঘদি‌নের প্রত‌্যাশা পূরণ হয়েছে। সাপ্তা‌হিক সুরমার বার্তা সম্পাদক ক‌বি আব্দুল কাইয়ুম বৃহস্প‌তিবার (১০ মার্চ) রা‌তে বাংলা ট্রিবিউন‌কে ব‌লেন, এই ঐতিহাসিক অর্জনে আমরা আনন্দিত ও উজ্জীবিত।

তি‌নি জানান, স্টেশনটিতে বাংলা সাইনবোর্ড বসানোর জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষ বরাবরে লিখিত আবেদন করেছিলেন আমার শ্বশুর আব্দুল কাইয়ূম চৌধুরী। আবেদনটি গৃহীত হওয়ার পরপরই লোকাল অথোরিটি টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল তা বাস্তবায়নে উদ্যোগী হয়। আজকের এই আনন্দঘন মুহূর্তে উনিসহ বিভিন্নভাবে যারা ক্যাম্পেইন করেছিলেন একজন বাঙালি হিসেবে আমি ব্যক্তিগতভাবে তাদের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

ভয়েস/আআ

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020
Design & Developed BY jmitsolution.com